টিপ্পনি

এইচআইভি (HIV): হিউম্যান ইমিউনোডেফিশিয়েন্সি ভাইরাস (এইচআইভি) আপনার শরীরের আভ্যন্তরীন রোগপ্রতিরোধ ব্যবস্থা দুর্বল করে দেয় । রোগপ্রতিরোধ ব্যবস্থা রোগের সংক্রমন থেকে আপনাকে রক্ষা করে থাকে । কিন্ত এইচআইভি রোগপ্রতিরোধ ব্যবস্থা ফাঁকি দিয়ে শরীরে প্রবেশ করে এবং ভেতর থেকে আক্রমন করে । শরীরের এই রোগপ্রতিরোধ ব্যবস্থা যথেষ্ট দুর্বল হয়ে গেলে অন্যান্য সংক্রমনের হাত থেকে নিজেকে রক্ষা করতে না পেরে অসুস্থ্ হয়ে পড়তে পারেন । এ অবস্থায় সঠিক চিকিৎসা করা না গেলে আপনি প্রানঘাতি রোগে           আক্রান্ত হতে পারেন । এ অবস্থায় আপনি এইডস আক্রান্ত বলে চিহ্নিত হবেন ।

জন্ডিস (Jaundice): লিভারের অসুস্থতার কারণে ত্বক বা চোখ হলুদ হয়ে যাওয়া

জীবানুমুক্ত (Sterile): রোগ সৃষ্টি করতে পারে এমন জীবানু যেমন ব্যাকটেরিয়া, ভাইরাস বা অন্য কোনো জীবানুর অস্তিত্ব নেই এমন কিছু

জীবানুমুক্ত করা (Sterilize): রোগ সৃষ্টি করতে পারে এমন জীবানুর অপসারন বা নির্মুল প্রক্রিয়া

টীকা (Vaccine): রোগীর দেহে এ্র্যান্টিবডি তৈরির মাধ্যমে রোগপ্রতিরোধ ব্যবস্থা সৃষ্টিতে সাহায্য করা

দীর্ঘস্থায়ী (Chronic): একটি দীর্ঘমেয়াদী সংক্রমণ বা পুণ:সংক্রমণের অবস্থা

প্রতিরোধী (Immunize): একটি সুনির্দিষ্ট রোগের বিরুদ্ধে সাধারণত একটি টিকার মাধ্যমে শরীরে প্রতিরোধ ব্যবস্থা তৈরি হওয়া

প্রদাহ (Inflammation): অসুস্থতা বা বিষক্রিয়ার কারণে শরীরের কোনো অংশ ফোলা, উত্তপ্ত বা ব্যাথা হওয়া । এটি মূলত: শরীরের সুস্থ হওয়া বা সেরে ওঠার একটি পর্যায় ও প্রচেষ্টা

প্রারম্ভিক/প্রাথমিক (Accute): সংক্রমণের প্রারম্ভিক বা প্রাথমিক পর্যায়, সাধারণত প্রথম ছয় মাস

ফাব্রোসিস (Fibrosis): যকৃতের ক্ষতির কারনে সেখানকার টিস্যু পুরু হয়ে যাওয়া এবং তাতে ক্ষত সৃষ্টি হওয়া

ভারাস (Virus): রোগ সৃষ্টি করতে পারে এমন একটি জীবানু

রোগনির্ণয় (Diagnosis): পরীক্ষার মাধ্যমে বা লক্ষন বিবেচনা করে একটি নির্দিষ্ট অসুস্থতা সনাক্ত করা

লক্ষনশূন্য (Asymptomatc): অসুস্থতার কোন লক্ষন বা উপসর্গ না থাকা

লক্ষন (Symptoms): যেসব চিহ্ন দিয়ে বোঝা যায় একজন মানুষ অসুস্থ

সিরোসিস (Cirrhosis): লিভারের রোগের চুড়ান্ত পর্যায় যা লিভারের ক্ষত বা ফাইব্রোসিস নামে পরিচিত। এর কারণে লিভারের স্বাভাবিক কার্যক্রম বাধাগ্রস্থ হয় এবং লিভারের কাজ পুরোপুরি বন্ধ হওয়ার আশংকা থাকে।